এলোভেরা যে কাজে লাগে এবং এলোভেরার গুনা গুণ সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত

এলোভেরা যে কাজে লাগে

by Md Limon
এলোভেরা যে কাজে লাগে এবং এলোভেরার গুনা গুণ সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত।এলোভেরা যে কাজে লাগে এবং এলোভেরার গুনা গুণ সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত।

এলোভেরা যে কাজে লাগে এবং এলোভেরার গুনা গুণ সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত।

আমাদের দেশে এলোভেরা এখন বানিজ্যিক ভাবে চাষ করা হয়।বর্তমান বাজারে এলোভেরার চাহিদা অপরিসীম। এলোভেরা শুধু আমাদের দেশেই নয় বিশ্ব বাজারেও এলোভেরা খুব খ্যাতি লাভ করেছে। এলো ভেরা এখোন দেশে বিদেশে চাষ করা হয়।

“এলোভেরা” হল একটি উদ্ভিদের গ্রুপ যা মূলত সুদৃঢ় ফলনশীল পাতা এবং মধু উৎপাদন এর জন্য গ্রামীণ এলাকাগুলোতে চাষ করা হয়। এলোভেরা বিশেষত জলাভদ্রতার এলাকাগুলোতে চাষ করা হয় যেখানে সামান্য পরিমানে জল উপস্থিত থাকে। এলোভেরা আরও কিছু বৈশিষ্ট্য হল:

  1. এলোভেরা একটি সুদৃঢ় উদ্ভিদ যা ঘন শস্য হিসাবে চাষ করা যায়।
  2. এলোভেরা একটি উষ্ণতাপ প্রিয় উদ্ভিদ, যা উষ্ণতার সামঞ্জস্যে সুদৃঢ়ভাবে বেঁচে থাকে।
  3. এলোভেরা একটি অদ্ভুত সংগ্রহযোগ্য উদ্ভিদ যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অনেকগুলি উপকার করে তোলে। এলোভেরা মধু অনেক জনপ্রিয় এবং স্বাস্থ্যকর যেখানে তা অনেক প্রকারের উপকার করে তোলে যেমনঃ ডাইবেটিস, স্কিন সমস্যা এবং পেট সমস্যা এবং অনে

১/ এলোভেরা জেলিঃ এলোভেরা জেলি বানিয়ে বাজার জাত করা হয়। এলোভেরার জেলি হাল্কা তেতোমিঠা।
তোবে সকালে রুটি দিয়ে খেতে দারুণ শুসাধু।এটা শারিরীক সুস্থতা রাখায় খুব ভালো কাজ করে। এবং শারীরিক ফিটনেস ধরে রাখতে সাহায্য করে।

২/ এলোভেরা জুসঃ এলোভেরার উপরের ছোবলাটা ছিলিয়ে ভ্যালেন্ডারের সাহায্যে গলিয়ে অল্প আইস মিশিয়ে জলের সাথে দিয়ে জুস তৈরি করা হয়।এটাও আপনার শরীর সুস্থতা রাখতে খুব ভালো কাজ করে। এলোভেরার জুসে আপনার কোনো প্রোকার সাইড ইফেক্ট করে না।আপনি চাইলে বাসায় বসে তৈরি করতে পারেন।

এলোভেরা যে কাজে লাগে এবং এলোভেরার গুনা গুণ

এলোভেরা যে কাজে লাগে এবং এলোভেরার গুনা গুণ সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত।এলোভেরা যে কাজে লাগে এবং এলোভেরার গুনা গুণ সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত।

এলোভেরা যে কাজে লাগে এবং এলোভেরার গুনা গুণ সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত।

এলোভেরা যে কাজে লাগে এবং এলোভেরার গুনা গুণ

৩/ এলোভেরা ওয়েলঃ এলোভেরা দিয়ে তৈল তৈরি করা হয়। আর এই তৈল বিশ্ব বাজারে খুব ভালো চাহিদা।বিশেষ করে এই এলোভেরা তৈল মহিলাদের জন্য তৈরি করা হয়।
মহিলাদের মাথার চুল পরা বন্ধ করে চুল সিল্কি হয়। এবং মাথা ঠান্ডা রাখতে খুব ভালো কাজ করে।

৪/ এলোভেরা জেলঃ এলোভেরা দিয়ে পুরুষের চুলের জন্য জেল তৈরি করা হয়।এলোভেরার জেল মাথার চুল পরা বন্ধ করে। চুল সিল্কি এবং একদিকে রাখতে সাহায্য করে। ৫/ এলোভেরা ক্রিমঃ এলোভেরা স্কিন ক্রিম তৈরি করা হয়। এই ক্রিম মহিলা পুরুষ উভয় শীত এবং গৃষ্ণ সব সময় ব্যাবহার করতে পারে। এলোভেরার ক্রিম আমাদের স্কিন খুব ভালো রাখতে সাহায্য করে। কোনো সন্দেহ ছারাই এই এলোভেরার ক্রিম ব্যাবহার করতে পারেন।

৬/ এলোভেরা লিপজেলঃ এলোভেরার লিপজেল শীতের সময় আমাদের ঠোঁট ফাটা থেকে বিরতো রাখে। আমাদের ঠোটকে লালছে বর্নের করে ঠোঁটের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে। বিশ্ব বাজারে এই এলোভেরার লিপজেলের খুব চাহিদা। এই লিপজেল নারী পুরুষ উভয় ব্যাবহার করতে পারবে।

৭/ এলোভেরা ফেইজ ওয়াসঃ এলোভেরা দিয়ে ফেইজ ওয়াস তৈরি করা হয়। আর এই ফেইজ ওয়াস পুরুষের চেয়েও নারীরা বেশি ব্যাবহার করে থাকেন। কারণ নারী সাঁজ গোঁজ বেশি পছন্দ করে।পুরুষের চেয়ে নারীর মুখে বেশি দাগ থাকে। আর এই এলোভেরার ফেইজ ওয়াস সকল প্রকার ব্রোন সৌদ অথবা যে কোনো দাগ র্নিমুলে খুব ভালো কাজ করে।

৮/এলোভেরা বেবী ভেজলিনঃ এলোভেরার আর একটা বিশেষ বেবী ভেজলিন। যে ভেজলিন আপনি আপনার বেবীর ত্বকে ব্যাবহার করতে পারবেন। এই ভেজলিন আপনার বেবীর ত্বককে মসৃণ ও ফ্রেশ রাখবে। এই ভেজলিন ব্যাবহার করলে আপনার বেবীর জন্য অন্য কোনো প্রকার লোশোন বা ক্রিম ব্যাবহার করতে হবে না।এই এলোভেরার ভেজলিন চাইলে আপনিও আপনার ত্বকে ব্যাবহার করতে পারেন।

এলোভেরা যে কাজে লাগে এবং এলোভেরার গুনা গুণ

এলোভেরা একটি বিস্তৃত ব্যবহার যন্ত্র যা অনেক উদ্দেশ্যে ব্যবহৃত হয়। নিচে কয়েকটি প্রধান ব্যবহার তালিকা দেওয়া হল:

  1. স্কিন কেয়ার: এলোভেরা গেলে আপনার ত্বকের উপর একটি শুষ্কতা বাধা দেয়। এটি আপনার ত্বককে নরম এবং স্বচ্ছ রাখে। সামান্য আলোভেরা জেল ব্যবহার করা হলে সবচেয়ে ভালো ফল পেতে পারেন।
  2. চোখ কেয়ার: এলোভেরা পাতাগুলি চোখের সমস্যার জন্য ব্যবহৃত হয়। এটি চোখের সমস্যার জন্য উপযোগী হতে পারে যেমনঃ আঁখির ফোলা, জলবায়ু লক্ষণ এবং চোখের ব্যথা এবং পানি পড়া।
  3. গ্যাস্ট্রোইনটেস্টিনাল সমস্যার চিকিৎসা: এলোভেরা গ্যাস্ট্রোইনটেস্টিনাল সমস্যার চিকিৎসার জন্য ব্যবহৃত হয়। এটি পেটের ব্যথার জন্য পরামর্শ করা হয় এবং যেমন কিছু

 

নারীদের সুস্বাস্থ্যে আলিঙ্গন করা জরুরী।

You may also like

1 comment

Leave a Comment